প্রচ্ছদ

জিন্দাবাজারে ব্যস্ত সড়কে গাড়ি পার্কিং, অভিনব প্রতিবাদ

০২ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:৪১

গোলাপগঞ্জের ডাক

ডাক ডেস্কঃ সিলেট নগরীর জিন্দাবাজারস্থ রাজা ম্যানশনের সামনে গাড়ি পার্কিং করে রাখেন এক ব্যক্তি। প্রায় ঘন্টাখানেক পরও তিনি গাড়ি না সরালে রাস্তায় প্রচণ্ড যানজটের সৃষ্টি হয়। একই সাথে রাজা ম্যানশনের ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদেরও অসুবিধা সৃষ্টি করছিল। এসব দেখে অভিনব প্রতিবাদ করেন এক নাট্যকর্মী।

তিনি গাড়িতে সাদা পোস্টাল পেপার লাগিয়ে তাতে লিখে রাখেন ‘বলদ গাধা গরু দিয়ে কি মানবাধিকার সংস্থা চলে? দুই বেলা গু না খেয়ে ভাত রুটি খাওয়ার চর্চা করুন’।

শনিবার (২ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১১ টা থেকে ১২ টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত ‘No crime no tears’ স্লোগান সম্বলিত ‘Human Aid’ নামের একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার স্টিকার লাগানো (ঢাকা মেট্রো ঘ ১৩-০৫৯৮) গাড়িটি জিন্দাবাজারের রাজা ম্যানশনের সামনেই ছিল। এই সময় গাড়ি সংশ্লিষ্ট কাউকে না পেয়ে এ অভিনব প্রতিবাদ করেন।

এর কিছু সময় পরে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ সিলেট জেলার সভাপতি স্বামীমা স্বাধীনসহ তিনজন মহিলা গাড়ির কাছে আসেন। এসেই উচ্চস্বরে গালিগালাজ শুরু করেন। একই সাথে লাগানো প্রতিবাদী লেখা সম্বলিত কাগজ ছিঁড়ে ফেলে যে লাগিয়েছে তাকে খুঁজতে থাকেন। কেউ তার কথায় উত্তর না দিলে তিনি নিজের ইচ্ছামতো কিছুক্ষণ গালিগালাজ করে গাড়ি নিয়ে চলে যান।

নাট্যকর্মী ঝলক রঞ্জন দাস বলেন, গাড়িটি কোথায় পার্ক করবেন সেটা ঠিক করা অত্যন্ত জরুরি ছিল। কারণ গাড়িটি যেখানে পার্ক করা হয়েছে, এই সড়ক ব্যস্ততম এলাকা। এখানে প্রায় ঘণ্টা খানেক সময় ধরে গাড়ি ফেলে রাখা মানে বিশাল কিছু। অন্যান্য গাড়ীর ড্রাইভার ও পথচারীরা ডাকাডাকি করেও এই গাড়ির মালিক বা চালক কাউকেই পান নি।

তিনি আরও বলেন, ‘এসময় আমরা রাজা ম্যানশন ছিলাম। মানুষের হৈ-হুল্লোড় শুনে আমরা সেখানে যাই। গিয়ে দেখি একটি গাড়ি পার্ক করে রাখা। সে গাড়িতে আবার মানবাধিকার সংস্থা লেখা। এই জন্য বিষয়টি আরো দৃষ্টিকটু লেগেছে। কারণ যারা আমাদেরকে সচেতন করবে তারাই যদি আইন ভঙ্গ ও মানুষের ভোগান্তির কারণ হয় তাহলে বিষয়টা ভালো দেখায় না। সেই জন্য এই অভিনব প্রতিবাদ।’

এ ব্যাপারে স্বামীমা স্বাধীনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি মিটিঙয়ে আছেন উল্লেখ করে পরে কল দিতে বলেন।

  •  
  •  

গরু ছাগলের হাট

সর্বশেষ খবর