প্রচ্ছদ

ওসমানী হাসপাতালের চারজনের বিরুদ্ধে দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের প্রমান পেয়েছে দুদক

12 November 2019, 19:30

গোলাপগঞ্জের ডাক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ   সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক উপপরিচালক ডা. মো. আব্দুস ছালামসহ চারজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে এই চার্জশিট দেওয়া হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার আদালতে এই চার্জশিট জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাহবুবুল আলম। চার্জশিটে অভিযুক্ত বাকিরা হলেন- ঢাকার কাকরাইলের মেসার্স প্রাইম এন্টারপ্রাইজের প্রোপ্রাইটর মো. জাকির হোসেন, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষক মো. আবদুল কুদ্দুছ আটিয়া ও তার ছেলে আরিফ আহমেদ।

তিনি জানান, দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে আজ সিলেটের আদালতে চারজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। মামলার তদন্তও প্রধান কার্যালয় থেকে করা হয়। চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কথিত এমএসআর সামগ্রী সরবরাহের নামে ২৪টি ভুয়া বিলের মাধ্যমে ১ কোটি ৫৭ লাখ ৯৬ হাজার ৬৪ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এর মধ্য দিয়ে তারা দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১ ও ১০৯ ধারাসহ দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন, ১৯৪৭-এর ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। জানা গেছে, অভিযুক্ত চারজনের বিরুদ্ধে দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গেল বছরের ২৪ মে সিলেট নগরীর কোতোয়ালী থানায় মামলা হয়। দুদক প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহবুবুল আলম মামলাটি করেন। পরে তিনিই মামলার তদন্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পান। এ বিষয়ে দুদকের সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক নুর-ই-আলমের সাথে আলাপ করা হলে তিনি চার্জশিট দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

  •  
  •  

সর্বশেষ খবর